Subscribe Us

Header Ads

রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প কাহিনী | ভালোবাসার গল্প 2021

রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প কাহিনী | ভালোবাসার গল্প 2021 

রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প কাহিনী
 
রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প কাহিনী. সকালে ঘুম থেকে উঠে আর ছোফায় মাসুদকে দেখতে পেলো না লিমা। ও ভাবছে হয়তো বাইড়ে গেছে। তারপর তার স্বাভাবিক কাজগুলো করতে লাগলো। সকাল পেড়িয়ে দুপুর, দুপুর পেড়িয়ে সন্ধা হয়ে গেলো এখনো মাসুদের দেখায় পায়নি লিমা। তখনি গত কালের কথাটা মনে পড়ে গেল “কাল থেকে আর এই ছোটলোকের বাচ্ছাটার মুখ দেখা লাগবে না তোমার। তার মানে কি মাসুদ সত্যি সত্যি চলে গেছে! যাক ভালো হয়েছে! আমি বেঁচে গেলাম। কথা গুলো ভাবতে থাকে লিমা। এরপর সবার সাথে রাতের খাবার খেয়ে শুয়ে পড়লো লিমা। বাড়ীতে কেউ মাসুদের কথা একটা বার জিগ্গাসাও করলো না

আজ লিমার ঘুম আসছে না। ”আচ্ছা আমি মাসুদের সাথে কেন খারাপ ব্যবহার করলাম! আমি তো ওকে মেনেও নিতে পারতাম! আর তাছাড়া মাসুদের সাথে তো আমার বিয়ে হয়ে গিয়েছে। ওকে কেনো এতোটা অপমান করলাম! আবার ভাবে “আরে ধুর! কোথাকার কে তার জন্য এতো ভাবার কি আছে! আমি যার বিষয়ে কিছুই জানি না তার জন্য কেন এতো চিন্তা করবো! যাক আপদ বিদায় হয়েছে ভালোই হয়েছে এসব ভাবতে ভাবতে রাতে ঘুমিয়ে পড়লো লিমা। সকালে উঠে ফ্রেস হয়ে নিচে গেলো। মাসুদের আজো কোনো খোজ নেই। লিমার আজ কিছুই ভালো লাগছে না। কিছু যেন একটা খুব করে ভাবাচ্ছে ওকে।

রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প কাহিনী

আচ্ছা মাসুদের সাথে কি এমনটা করা ঠিক হলো! না ওতো আমায় জোড় করে বিয়ে করে নি! বাবাই ওকে বাধ্য করেছে এই বিয়েতে। কিন্তু ওকে এতো অপমান করার পরও কেন কোনো প্রতিবাদ করলো না! আচ্ছা আমি কেনই বা ওকে সহ্য করতে পারছিলাম না! মনে মনে লিমা এখন মাসুদকে মিস করতে শুরু করেছে। দুটি বছর একসাথে থাকার ফলে কিছুটাতো ভালোলাগা তো কাজ করেই। তারপর তাদের বিয়ের তিনমাস সম্পূর্ন হয়েছে। তিন মাস এক ছাদের নিচে থাকলে একটু তো মায়া জন্মাবেই যতই একে অন্যকে সহ্য করতে না পারুক।

লিমা ব্রেক-ফাস্ট করে রুমে গেলো। না কিছুই ভালোলাগছে না ওর। মন খারাপ করে খাটের উপর বসে পরলো। তার চোখের সামনে পড়ে আছে একটি টেবিল। মাসুদ এই টেবিলটায় বসে পড়তো। লিমা কি যেন মনে করে টেবিলটির কাছে গেলো। খুব সুন্দর গুছানো একটি টেবিল। বইগুলো আগের মতোই পরে আছে কিন্তু এগুলো পড়ার মানুষটাই নেই। হঠাৎই তার চোখে পরলো কলম দিয়ে চাপা দেওয়া একটি কাগজ।লিমা কাগজটি হাতে নিয়ে পড়তে শুরু করলো।

“লিমা!” আমি জানতাম যে আমি তোমার কাছে এতোটাই বিরক্তিকর। জানো লিমা প্রথম যে দিন তোমায় দেখেছিলাম যেন আমার সময় সেখানেই থেমে গিয়েছিলো। আমি তোমায় মাঝেই হাড়িয়ে গিয়েছালাম। প্রথম দেখায় তোমার মায়ায় জড়িয়ে পড়েছিলাম।  তারপর যখন জানলাম তুমি পলাশ আঙ্কেলের মেয়ে, আমি সেই মায়া কাটিয়ে ফেলার চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু রোজ সকাল-বিকাল যখনই তুমি আমার সামনে আসতে, আমার মন যেন আর আমার বাধা মানতে চাইতো না! কি যেন একটা আকর্ষন করতো আমার মনটাকে। তুমি চোখের সামনে থাকলে মনে হাজারো কল্পনার সৃষ্টি হতে যার মূলটা তুমি ছিলে। 

ভালোবাসার ছোট গল্প

তবুও চেষ্টা করতাম তোমার থেকে দূড়ে থাকার। আমি জানতাম তুমি আমায় একদমই সহ্য করতে পারতে না আর এখনো পারো না। তাই নিজেকে আড়াল করে রাখতে চাইতাম তোমার থেকে। খাবার টেবিলে যখন তুমি আমার সামনে বসতে, আমার চোখ দুটো আমার সাথে বেইমানী করতো, শুনতো না আমার কোনো কথা। তোমার দিকেই চেয়ে থাকতো অপলক। এরপর আঙ্কেল যখন তোমায় পড়ানোর কথা বললো আমি আঙ্কেলকে অনেক ভাবেই না করেছি কিন্তু তার সাথে পারিনি। জানো লিমা তুমি যখন মন দিয়ে পড়তে তখন দুটি চোখ যেন তোমার দিকেই চেয়ে থাকতো। আমি পারতাম না তাদের ফেড়াতে।

আস্তে আস্তে মনে মধ্যে তোমায় নিয়ে হাজারও সপ্ন দেখতে থাকি। যদিও জানতাম এগুলো কখনোই সত্যি হবার নয়। মিত্যেই হোক তবুও যেন মনে সান্তি পেতাম। আমি বলতে চাইতাম আমার মনের কথা তোমায় কিন্তু পারি নি। পারি নি মুখ ফুটে বলতে,’লিমা ভালোবাসি’ হ্যা ভালোবাসি তোমায়। অনেক ভালোবাসি কিন্তু বলার সুযোগ পাইনি। হয়তো সেই সুযোগটা তুমি আমায় দাওনি।তবুও তোমায় নিবরেই ভালোবেসে জেতাম। এতেই যেই ছিল পরম সান্তি। লিমা যখন তোমার বিয়ে ঠিক হলো তখন যেন আমার ভেতটা চিড়ে যাচ্ছিলো। কিন্তু আমি আগে থেকেই জানতাম তোমায় পাওয়া আমার দ্বারা সম্ভব না কারন আমি তো অনাথ তাই না। কি আছে আমার! কি দিয়ে সপ্ন দেখাবো তোমায়। সবার খুশির মাঝে আড়াল হয়ে গিয়েছিল সেদিন আমার বোবা কান্না।

ভালোবাসার গল্প 2021

ভালোবাসার গল্প 2020

প্রথম প্রেমের গল্প

কিন্তু পড়ে যখন বরের সমস্যার পর আঙ্কেল তোমার সাথে আমার বিয়ের কথা বললো, তখন সময়টা আমার কাছে সপ্নের মতো লাগছিলো। আমি জানতাম তুমি কখনোই আমায় মএনে নিবে না। তআই বিয়েতে তোমার মত জানতে অনেক বার বলেছিলাম আঙ্কেলকে। কিন্তু তিনি আমার কথা শোনেন নি।তোমায় ভালোবাসি ঠিকই কিন্তু তোমার মনের বিরুদ্ধে আমি তোমায় কখনোই পেতে চাই নি। জানো লিমা যখন তোমার সাথে আমার বিয়ে হচ্ছিলো আমার মনে হচ্ছিলো আমি যেন আর অনাথ নই, আজ থেকে আমারও একটা পরিবার হলো কিন্তু দেখো এটাও আমার কপালে সইলো না।

ছোট থাকতে অনাথ আশ্রমে ছিলাম, আঙ্কেল আমায় বিশ্বাস করে এখানে নিয়ে এসেছিলো কিন্তু তা আজ নষ্ট হয়ে গেলো। লিমা জানো তোমার কোনো প্রতিবাদ করিনি আমি কেন করিনি! কারন আমি আঙ্কেলকে সত্যটা বললে সে তোমায় খারাপ ভাববে। তোমার বাবা, তোমার পরিবার সেখানে আমি কে তাই ভাবলাম তুমি ভালোথাকো। আমি শড়ে গেলাম তোমার জীবন থেকে।

সেরা ভালোবাসার উক্তি

জানো লিমা তোমার অপমানেও ততোটা কষ্ট পাইনি যতটা লাগতো ছোটলোকের বাচ্চা বললে। জানো লিমা আমার একসময় সবই ছিলো কিন্তু নিয়তি আমার কাছ থেকে সব কিছুই নিয়ে নিয়েছিলো। আমার বাবা ছোটলোক ছিলো না।

যাক সে কথা এই ছোটলোকের বাচ্চাটা আর তোমার সামনে আসবে না। কোন ভুল করে থাকলে আমায় মাফ করে দিও আর হ্যা নিজের খেয়াল রেখো, ইতি, ছোটলোকের বাচ্চা কাগজটি পরে লিমা কিছুক্ষনের জন্য পাথর হয়ে গেলো। নিজের ভুলেই এমন একটা মানুষকে হাড়ালো যে কিনা তাকে এতো ভালোবাসতো! আসলে লিমা মাসুদের ব্যাপারে কিছুই জানতো না। লিমা দৌড়ে নিজের বাবার কাছে চলে গেলো। বাবা মাসুদ কে? (লিমা) কেন? (লিমার বাবা) বলো please (লিমা)

মাসুদ হচ্ছে তোর শহীদ আঙ্কেলের ছেলে। জানিস মা আমিও অনাথ ছিলাম। তোর শহীদ আঙ্কেল ছিলো আমার বেস্ট ফ্রেন্ড। আজ আমি এই পজিশনে একমাত্র তোর শহীদ আঙ্কেলের কারণেই। মাসুদ ছোট থাকতে তোর আঙ্কেল আর আন্টি একটি দুর্ঘটনায় মাড়া যান। তারপর মাসুদ অনাথ আশ্রমেই বড় হয়। আমি ভেবেছিলাম 

অন্যান্য পোস্ট সমূহ:-

Emotional love message bangla

Romantic love story 2021 after the marriage of Neha and Mehdi

 এটাই কি ভালোবাসা? বেস্ট ভালোবাসার গল্প 2021

ভালোবাসার গল্প কাহিনী । New valobasar golpo 2021

নামাজ নিয়ে ইসলামিক শিক্ষামূলক ছোট গল্প ২০২১

Short Love Story | প্রথম দেখাতেই ভালোবাসা

হাই স্কুল প্রেমের গল্প প্রথম দেখাতেই ভালোবাসা চিরকাল ভালবাসি

Valobashar romantic golpo bangla


  1. ভালোবাসার গল্প পড়তে চাই
  2. ভালোবাসার গল্প 2021
  3. রোমান্টিক ভালোবাসার গল্প কাহিনী
  4. সেরা ভালোবাসার উক্তি
  5. ভালোবাসার ছোট গল্প
  6. প্রথম প্রেমের গল্প
  7. Want to read love stories,
  8. Love Story 2021,
  9. Romantic love story
  10. Best Love Quotes,
  11. A short love story,
  12. A first love story,

Post a Comment

0 Comments